সাতক্ষীরায় নৌকার প্রার্থীকে লক্ষ্য করে বোমা হামলার অভিযোগ, প্রতিবাদে মানববন্ধন

ইউনিক প্রতিবেদক, সাতক্ষীরা : 

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগরে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শ্যামলী রানী অধিকারীকে লক্ষ্য করে বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে তার কয়েক জন কর্মী সমর্থক আহত হয়েছে বলে তারা দাবী করেছেন। রবিবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শ্যামলী রানী অধিকারী কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের নেঙ্গী এলাকায় নির্বাচনি পথসভা শেষে বাড়ি ফেরার পথে কৃষ্ণনগর শ্মশানঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে, পুলিশ বলছে এ ঘটনায় কেউ আহত হননি।
প্রত্যক্ষদর্শী ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারী, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আরব আলী, সেলিম মাহমুদ ও আরিফুল ইসলাম জানান, নেঙ্গী এলাকা থেকে রাতে নির্বাচনি পথসভা ও প্রচার প্রচারণা শেষে ফেরার পথে কৃষ্ণনগর শশানঘাট এলাকায় পৌছালে ৩ থেকে ৪ জনের একদল দূর্বৃত্ত তাদের লক্ষ্য করে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে নৌকার প্রার্থী শ্যামলী রানী অধিকারী ঘটনাস্থলেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। এতে তাদের কয়েকজনের আহত হয়েছে বলে তারা দাবী করেন। তারা প্রাথমিক চিকিৎসাও নিয়েছেন। এছাড়া শ্যামলী রানীকে কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে তারা জানান।
এ ব্যাপারে কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গোলাম মোস্তফা জানান, বোমা হামলার কোন ঘটনা সেখানে ঘটেনি। ফাঁকা জায়গায় একটি বিকট শব্দ হয়েছিল। সেখান থেকে কিছু জালের কাটি ও কাঁচের গুড়ো পাওয়া গেছে। তবে কেউ আহত হননি বলে তিনি দাবী করেন। ঘটনার তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি আরো জানান।
এদিকে, এ ঘটনায় শ্যামলী রানী অধিকারীর কর্মী-সমর্থকরা সোমবার দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করেছে। এতে বক্তব্য রাখেন, কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোস্তফা কবিরুজ্জামান, উপজেলা যুবমহিলা লীগের সভাপতি ফাতেমা খাতুন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শ্যামলী রানী অধিকারীর স্বামী বাপী অধিকারী প্রমুখ।
বক্তারা এ বোমা হামলার ঘটনার জন্য লাঙ্গল প্রতিকের প্রার্থী সাফিয়া পারভীনের কর্মী-সমর্থকদের দায়ী করেছেন। তারা বলেন, তাদের কর্মীসমর্থরা বিভিন্নভাবে হামলা ও হয়রানীর শিকার হচ্ছেন। এ ব্যাপারে তারা প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
উল্লেখ্য ঃ প্রায় এক মাস পূর্বে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শ্যামলী রানী অধিকারীর বাড়িতে বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। টানা দুইবার বোমা হামলার ঘটনা ঘটায় তার কর্মী-সমর্থকদের মাঝে কিছুটা আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আপনার মতামত জানানঃ