সাভারে ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার ২

ইউনিক ডেক্সঃ সাভারে ধর্ষণ ও নির্যাতন মামলায় গৌতম তাম্বলী ও রনি প্রিন্স নামে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে সাভার থানা পুলিশ। বুধবার (১০ মে) রাতে অভিযুক্তদের নিজ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

নির্যাতিত তরুণী ৯ জনকে আসামি করে সাভার মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর-৪, এর ধারা ৯(১)/৩০ এর ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন।

মামলার আসামিরা হলেন- আড়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা অনিল তাম্বলীর ছেলে গৌতম তাম্বলী (৩২), জাহাঙ্গীরনগর হাউজিং সোসাইটি গেট সংলগ্ন শাহনাজ (৩৩), আড়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা মিলন (৩৫) ওমর ফারুক (৩২), মো. রাজু খান (৪২), শফিকুল ইসলাম রনি (৪১), খোকন (৩৫), রনি প্রিন্স (৩৭) ও মো. রাজা দেওয়ান (২৮)।

আপত্তিকর দৃশ্য ধারণ করে তা ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে ওই তরুণীর বাবার কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করে। বখাটেরা শুধু ধর্ষণ করেই ক্ষ্যান্ত হননি। মারপিট করে এলাকা ছাড়া করবে এবং বেশি বাড়াবাড়ি করলে হত্যার পর লাশ গুম করা হবে বলেও হুমকি দেয়।

এমন ভয়ভীতি দেখিয়ে পরিবারটির কাছ থেকে জোরপূর্বক অলিখিত স্ট্যাম্পেও স্বাক্ষর নিয়েছে প্রভাবশালী বখাটে ও তার সহযোগীরা। এমনটিই মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলায় বলা হয়, ২০১৬ সালের মে মাসের ঘটনা। ওই তরুণী পরিবারের সঙ্গে সাভার পৌর এলাকার আড়াপাড়া মহল্লায় দিপু মোল্লার বাসায় ভাড়া থাকতেন। মামলার ১ নম্বর আসামি গৌতম তাম্বলী ওই তরুণীকে রাস্তা-ঘাটে বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করতো। এক সময় প্রেমের প্রস্তাব দিলে তা প্রত্যাখ্যান করলে তাকে মাইক্রোবাসে করে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে ওই তরুণীকে শাহনাজ নামের এক নারীর বাড়িতে নিয়ে আসামিদেরর সহযোগিতায় সেখানে আটকে রেখে তাকে পাশবিক নির্যাতন চালায়।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাভার মডেল থানার উপ-পরির্দশক বলেন, ইতোমধ্যে মামলার প্রধান আসামি গৌতম তাম্বলী ও রনি প্রিন্সকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

আপনার মতামত জানানঃ