ফুলতলায় পাওনা টাকা চাওয়ায় ব্যবসায়ীকে অপহরণ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সম্পাদকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলাঃ আটক ২

তাপস কুমার বিশ্বাস, ফুলতলা (খুলনা) : পাওনা টাকা চাওয়ায় চা এর দোকানদার মোঃ ফারুক হাওলাদার (৫৫) কে অপহরণ করে মারপীট, টাকা ছিনতাই, নির্যাতনের মাধ্যমে উল্টো ৬ লাখ টাকা ছিনতাই করেছে এমন স্বীকারোক্তি মোবাইল ফোনে ধারণ, দোকান ভাংচুর এবং লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি ঘটে শনিবার রাত ৮টায় ফুলতলার জামিরা পশ্চিমপাড়ার নাজিম মোল্যার পুত্র ইকবাল মোল্যার দোকানের সামনে। এ ব্যাপারে অপহৃত ফারুক মোল্যা বাদি হয়ে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সম্পাদক ফিরোজ মোল্যাসহ ৬ ব্যক্তির নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরও ৪ /৫ ব্যক্তিকে আসামী করে ফুলতলা থানায় মামলা (নং-১৭, তারিখ-৩০/০৫/২১ইং) করলে পুলিশ এজাহারভুক্ত ২ আসামীকে আটক করে।
থানায় দায়েরকৃত মামলার সূত্রে জানা যায়, জামিরা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মোল্যার পুত্র জাফর মোল্যার কাছে পাশর্^বর্তী কাটেঙ্গার মাঝেরপাড়া এলাকায় মৃতঃ মোবারেক হাওলাদারের পুত্র ফারুক হাওলাদার তার কাঁচা মাল এবং চায়ের দোকানের পাওনা টাকার তাগেদা দেয়ায় বাগবিতন্ড ও হাতাহাতি হয়। এ ঘটনার জের ধরে শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় আসামী জামিরা গ্রামের নাজিম মোল্যার পুত্র আবজাল মোল্যা (৩০) ও ইকবাল মোল্যা (৩৮), মোঃ মুনসুর আলীর পুত্র রায়হান পারভেজ (২৫), মৃতঃ মজিদ মোল্যার পুত্র ফিরোজ মোল্যা (৫০), তার পুত্র জাফর মোল্যা (২৮) ও ইয়াসিন মোল্যা (২৫) চায়ের দোকানদার ফারুক হাওলাদার, তার বড় পুত্র সুমন হওলাদার (২১) এবং ছোট পুত্র রোহান হাওলাদার (১৭) কে এলোপাতাড়ি মারপীট. দোকান ভাংচুর, ১৪ হাজার টাকা ছিনতাই করে। এ ঘটনার পর আবার ফারুক হাওলাদারকে জোর পূর্বক মটরসাইকেলে (অজ্ঞাত) অপহরণ করে জামিরা গ্রামের ইকবালের দোকানের সামনে আটকে রাখে। এ সময় ফিরোজ মোল্যাগং তাকে নির্যাতন ও মারপীট করে উল্টে জাফর মোল্যার কাছ থেকে ৬ লাখ টাকা ছিনতাই করেছে বলে মোবাইল ফোনে এমন স্বীকারোক্তি রেকর্ড করে। খবর পেয়ে রাত ৩টায় ফুলতলা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতাবস্থায় ফারুক হাওলাদারকে উদ্ধার করে ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লক্সে ভর্তি এবং আসামী মোঃ আবজাল মোল্যা ও রায়হান পারভেজকে আটক করে। ওসি মোঃ মাহাতাব উদ্দিন বলেন. ব্যবসায়ী ফারুক অপহরণ ও মারপীট ঘটনায় মামলা হলে এজাহারভুক্ত ২ আসামীকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আসামীদের আটকের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

ফুলতলায় মাস্ক না ব্যবহার না করায় ৭ ব্যক্তিকে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও ইউএনও সাদিয়া আফরিন এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) রুলী বিশ্বাসের নেতৃত্বে পৃথক দুটি ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে রোববার বিকালে ফুলতলা উপজেলা কম্পাউনে মাস্ক ব্যবহার না করায় ৭ ব্যক্তিকে সাড়ে ৭ শত টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় করে। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন জামিরা বাজার আসমোতিয়া স্কুল এন্ড কলেজ শিক্ষক দিনেশ চন্দ্র মন্ডলকে ১শ’ ও প্রভাত কুমার বিশ্বাসকে ১শ’ টাকা, দাকোপের প্রসেনকে ২শ’ টাকা, পথের বাজার এলাকার বাবুল হোসেনকে ১শ’ টাকা ও ইজিবাইক যাত্রী জাকারিয়াকে ১শ’ টাকা, কালীগঞ্জের মীর আলী হোসেন কাজলকে ১শ’ টাকা এবং কুমরাইলের মুদি দোকানী সবুজ হাওলাদারকে ৫০ টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় করেছে বলে অফিস সূত্র জানিয়েছেন।