কেসিসি নির্বাচনে চূড়ান্ত হয়নি প্রধান দু’দলের মেয়র প্রার্থী

খুলনা : খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল শনিবার ঘোষণা করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এদিন বেলা ১১টায় বৈঠকে বসবে ইসি। বৈঠক শেষে তফসিল ঘোষণা করা হবে। এই সিটিতে ভোটগ্রহণের সম্ভাব্য তারিখ ১০ মে হতে পারে। ইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। একই সাথে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনেরও তফসিল ঘোষণা করা হবে।
সূত্র জানায়, সংসদ ভোটের আগেই (গাজীপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট) পাঁচ সিটিতে ভোটগ্রহণ করতে হবে। যেহেতু এর আগে ঢাকার দুই সিটি নিয়ে নির্বাচন তফসিল ঘোষণা করার পরও জটিলতা থাকায় বন্ধ করতে হয়েছে, তাই এসব সিটিতে কোনো জটিলতা আছে কি না, তা আগে থেকেই জানার জন্য দুই দফায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয় ইসি। ওই চিঠির জবাবে মন্ত্রণালয় বুধবার ইসিকে জানায় এসব নির্বাচনে কোনো জটিলতা নেই।
সূত্র জানায়, আসছে রমজানের আগে গাজীপুর ও খুলনা সিটি ভোটের পর যথাসময়েই বাকি তিন সিটিতে ভোট আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে ইসি। যদিও এরই মধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ‘জুলাইয়ের মধ্যে এসব নির্বাচন সম্পন্ন করতে চায় কমিশন।’
ইসির সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, খুলনা সিটি করপোরেশনের পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হবে ২৫ সেপ্টেম্বর। ২০১৩ সালের ১৫ জুন এ সিটিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সে হিসাবে এই সিটিতে নির্বাচনের দিন গণনা শুরু হয়েছে গতকাল শুক্রবার থেকেই।
এদিকে খুলনা সিটিতে আজ নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হলেও এখন পর্যন্ত প্রধান দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি তাদের মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত করতে পারেনি। বিএনপি’র পক্ষ থেকে মেয়র প্রার্থীর বিষয়টি নিশ্চিত তথ্য পাওয়া গেলেও আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা। দলীয় সূত্র বলছে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা শিগগিরই মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করবেন।
খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি তালুকদার আবদুল খালেক ২০১৩ সালের সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বড় ব্যবধানে হেরে যাওয়ার পর বাগেরহাট-৩ (রামপাল-মংলা) আসন থেকে সংসদ সদস্য হয়েছেন। তিনি আগামী জাতীয় নির্বাচনে সেখান থেকেই প্রার্থী হতে আগ্রহী। আর সিটি নির্বাচনে অংশ নেয়ার কোনো ইচ্ছা নেই তার।
আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, দৌলতপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ সৈয়দ আলী ও খুলনা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক সরদার আনিসুর রহমান পপলু দলের সমর্থন পাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছন। যদিও দলীয় প্রধানের ইচ্ছায় শেষ মুহুর্তে প্রার্থী হতে পারেন সাবেক মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক এমন গুঞ্জনও চলছে খুলনা নগরে।
অপরদিকে বিএনপি থেকে এখন পর্যন্ত সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে বর্তমান মেয়র মনিরুজ্জামান মনির নামটিই সর্বাগ্রে আসছে। যদিও জেলা বিএনপির সভাপতি ও সিটি করপোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর এসএম শফিকুল আলম মনাও ভোটে আগ্রহী। সেক্ষেত্রে বিএনপিতেও চলতে নানা হিসাব নিকাশ।

আপনার মতামত জানানঃ