ডুমুরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ : আহত ৭

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি : খুলনার ডুমুরিয়ায় যাত্রিবাহী বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ১ম শ্রেণির শিশু শিক্ষার্থীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত; ৭ জন। আজ শনিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে ডুমুরিয়া উপজেলার খুলনা-সাতক্ষীরা সড়কের মাঝেরভেঁড়ি নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন; ডুমুরিয়া উপজেলার গুটুদিয়া গ্রামের মৃত কাদের মোড়লের ছেলে ভ্যান চালক আসাদুল মোড়ল (৩৫), গুটুদিয়া গ্রামের ঐ ভ্যানের যাত্রি ডিম ব্যবসায়ি নারায়ণ ম-ল (৬৫), এবং উলা গ্রামের হুমায়ুন কবির সরদারের ছেলে ১ম শ্রেণির ছাত্র সাকিবুল ইসলাম (৭)। সাকিবুল ইসলাম গুটুদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালযের ১ম শ্রেণির ছাত্র। তারা উপজেলা সদর থেকে গুটুদিয়া গ্রামে যাচ্ছিলেন। মাহেন্দ্র ও ভ্যানের ৭ জন যাত্রী আহত হয়েছেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়; পাইকগাছা থেকে ছেড়ে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্রো-চ-৮০৭৫) খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের মাঝেরভেঁড়ি নামক স্থানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রথমে একটি মাহেন্দ্রকে ধাক্কা দেয়। এতে মাহেন্দ্রটি রাস্তার পাশে ছিটকে পড়ে। পরে বাসটি একটি ভ্যানকে চাপা দেয়। এতে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই ভ্যান চালক আসাদুল মোড়ল ও ভ্যানের যাত্রী ডিম ব্যবসায়ি নারায়ণ ম-ল ঘটনাস্থলে মারা যান। এছাড়া গুরুতর আহত ভ্যানযাত্রী সাকিবুল ইসলামকে ডুমুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আহতরা হচ্ছেন; সাকিবুলের পিতা হুমায়ুন কবির (৪০), তার বোন আঞ্জুয়ারা বেগম (৫০), আলতাফ হোসেন খান (৭৫), মাহেন্দ্র চালক আমিরুল ইসলাম ৯২৩), শহিদুল ইসরঅম (৪০), সুলতান আহম্মেদ (৪৫)। আহতদের মধ্যে নিহত সাকিবুলের পিতা হুমায়ুন কবির (৪০), তার ফুফু আঞ্জুয়ারা বেগম (৫০), আলতাফ হোসেন খান (৭৫) এর অবস্থা গুরুতর। আহতদেরকে ডুমুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে

ডুমুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিল হোসেন সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন; বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আপনার মতামত জানানঃ