প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের অসহায় মানুষের শেষ আশ্রয়স্থলে পরিণত হয়েছেন : বাবুল রানা

বিজ্ঞপ্তি :

খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের অসহায় মানুষের শেষ আশ্রয়স্থলে পরিণত হয়েছেন। দেশের মানুষের জন্য ১৪৪ প্রকারের নাগরিক সেবা নিশ্চিত করেছেন। প্রতিবন্ধী, বিধবা ও বয়স্কসহ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ভাতা চালু করেছেন। যার কারণে আজ তাকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ‘জুয়েল ইন দ্যা ক্রাউন’ বা বাংলাদেশের মুকুট মণি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল এমপি‘র পক্ষে নগরীর ২০নং ওয়ার্ডে দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি আরও বলেন, নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টি, বলিষ্ঠ নেতৃত্ব এবং জনকল্যাণমুখী কার্যক্রমে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। ক্রমাগত প্রবৃদ্ধি অর্জনসহ মাথাপিছু আয় বাড়ছে, কমছে দারিদ্র্যের হার। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর মতো বৃহৎ প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। বাংলাদেশ আজ সারাবিশ্বে উন্নয়নের মডেলে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ এখন আত্মমর্যাদাশীল জাতি।

তিনি বলেন, বতর্মানে সারাবিশ্ব করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে বিপর্যস্ত। বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় শেখ হাসিনার নেতৃত্ব বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হয়েছে। মহামারি করোনার প্রভাবে গোটা বিশ্বের অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়লেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়োচিত ও সাহসী পদক্ষেপের ফলে সরকার করোনার প্রভাব মোকাবিলা করে অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। টেকসই উন্নয়নের এ অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকলে ২০৪১ সালের মধ্যেই বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে একটি উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে। এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা তারই কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাস্তবে রূপ নিবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মল্লিক আবিদ হোসেন কবীর, নির্বাহী সদস্য এস এম আকিল উদ্দিন, মহানগর যুব লীগের আহ্বায়ক মো. সফিকুর রহমান পলাশ, কাউন্সিলর মাহমুদা বেগম। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন থানা আওয়ামী লীগ নেতা আলী আকবর মাতুব্বর, ২০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি চ. ম. মুজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মীর লিটন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা সালাম ব্যাপারী, নুর ইসলাম মুন্সি, যুব নেতা কবির পাঠান, মহানগর কৃষক লীগ নেতা মো. আইউব আলী খান, আলমগীর মল্লিক, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা শাহাদত হোসেন, শেখ আব্দুল মজিদ, আলহাজ¦ বাহা উদ্দিন, মো. আব্দুল হাই মাতব্বর, সিদ্দিকুল হক, ইখতিয়ার হোসেন সিবা সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

আপনার মতামত জানানঃ