নেতাকর্মীদের নিয়ে পুকুরে সাঁতার কাটলেন মওদুদ আহমদ

ঢাকা অফিস : পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে রাজধানী ছেড়েছেন হাজারো মানুষ। ঈদ উদযাপন করতে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি গিয়েছেন বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। ঈদ উদযাপন করতে গিয়ে নেতাকর্মীদের নিয়ে সাঁতার কেটেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

শুক্রবার নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে নিজ বাড়ির পুকুরে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে সাঁতার কাটেন তিনি। এ সময় নেতাকর্মীদের তিনি নিয়মিত সাঁতার কাটার ও ব্যায়াম করার পরামর্শ দেন। পরে নেতা কর্মীদের নিয়ে তিনি আড্ডা দেন। শুক্রবার বিকেলে ঢাকায় আসেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ১৯৪০ সালের মে মাসের ২৪ তারিখ নোয়াখালী জেলার কোম্পানিগঞ্জ উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৭-৭৯ সালে তিনি রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সরকারের মন্ত্রী ও উপদেষ্টা ছিলেন। ১৯৭৯ সালে তিনি প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং তাকে উপ-প্রধানমন্ত্রী করা হয়।

১৯৮১ সালের মে মাসে জিয়াউর রহমান নিহত হন এবং এক বছরের ভেতর হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ রাষ্ট্রক্ষমতা গ্রহণ করেন। ১৯৮৫ এর নির্বাচনে মওদুদ আহমেদ আবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং সরকারের তথ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। এক বছর পর ১৯৮৬ এ তাকে আবার উপ-প্রধানমন্ত্রী করা হয়। ১৯৮৮ সালে তিনি প্রধানমন্ত্রী হন। ১৯৮৯ সালে তাকে শিল্প মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয় এবং এরশাদ তাকে উপ-রাষ্ট্রপতি করেন।

৬ ডিসেম্বর ১৯৯০ সালে এরশাদ সরকার জনরোষের মুখে ক্ষমতা ছেড়ে দেয়। জাতীয় পার্টির মনোনয়ন নিয়ে ১৯৯১-এ মওদুদ আহমেদ আবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে তিনি বিএনপিতে যোগ দেন। ২০০১ সালেও তিনি বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পাঁচবার মওদুদ আহমেদ নোয়াখালী জেলার কোম্পানিগঞ্জ উপজেলা থেকে নির্বাচিত হন।

টাইমস স্কোয়ারে হামলার পরিকল্পনা : বাংলাদেশি তরুণ গ্রেপ্তার

আন্তর্জাতিক :  যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের টাইমস স্কয়ারে হামলার পরিকল্পনা করার অভিযোগে এক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার আশিকুল আলম নামের ওই তরুণকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে বলে জানায় নিউ ইয়র্ক টাইমস।

এফবিআই ও নিউ ইয়র্ক পুলিশ বিভাগের গোয়েন্দাদের জয়েন্ট টেরোরিজম টাস্ক ফোর্সের সদস্যরা তাকে গ্রেপ্তার করে। গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, আশিকুল টাইমস স্কয়ারে গ্রেনেড হামলা চালানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলো। তারপর থেকেই তাকে নজরদারিতে রাখা হয়। ছদ্মবেশী এক গোয়েন্দার সাথে অস্ত্র কেনা নিয়ে কথা বলেন তিনি। অস্ত্র কিনতে যাওয়ার পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এছাড়া তিনি নিউ ইয়র্ক ও ওয়াশিংটনের রাজনীতিবিদদের ওপর হামলাও চালাতে চেয়েছিলেন। শুক্রবার ব্রুকলিনের ফেডারেল আদালতে তাকে হাজির করা হবে।

মোদিকে ইমরানের চিঠি

আন্তর্জাতিক : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লিখেছেন পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। চিঠিতে কাশ্মীরসহ অন্যান্য সমস্যার সমাধানে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে আলোচনার আহবান জানিয়েছেন ইমরান খান।

দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার জন্য মোদিকে অভিনন্দন জানিয়ে ইমরান খান লিখেছেন, দু’দেশের মানুষের দারিদ্রের মোকাবিলা এবং উন্নয়নের স্বার্থে আলোচনায় বসাই একমাত্র রাস্তা। তবে ইমরানের এই চিঠি নিয়ে অবশ্য নয়াদিল্লির পক্ষ থেকে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

আগামী ১৩ ও ১৪ই জুন কিরঘিজস্তানের বিশকেকে এসসিও সম্মেলনে যোগ দেবেন ভারত এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু সেখানে মোদি ও ইমরানের মধ্যে বৈঠকের সম্ভাবনা নেই বলে স্পষ্ট করে দিয়েছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, ভারতে ভোটের প্রচারের সময় থেকেই ইমরান বলে চলছিলেন যে, মোদি ক্ষমতায় এলে পাকিস্তানের পক্ষে সেটা সুবিধাজনক হবে। ভোটের ফল ঘোষণার আগেই মোদিকে অভিনন্দনও জানিয়েছিলেন তিনি।

মাগুরায় সেপটিক ট্যাংকে পড়ে দুজনের মৃত্যু

মাগুরা : মাগুরার শ্রীপুরে সেপটিক ট্যাংকে পড়ে দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। সকালে উপজেলার খামারপাড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয়রা জানায়, খামারপাড়া গোরস্থান মোড়ে রুবেল মিয়ার নির্মানাধীন বাড়িতে বাঁশ খুলতে গিয়ে সেপটিক ট্যাংকে পড়ে যান পলাশ রায় নামে এক মিস্ত্রি। এ সময় তার চিৎকার শুনে একই এলাকার মনিরুল বিশ্বাস তাকে উদ্ধার করতে গেলে তিনিও সেপটিক টাংকে পড়ে গিয়ে সেখানে আটকা পড়েন। পরে দমকল কর্মীরা এসে তাদের দুইজনকে উদ্ধার করে জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

গায়ে কেরোসিন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

মুন্সীগঞ্জ : মুন্সীগঞ্জে স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে গায়ে কেরোসিন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন জেয়াসমিন আক্তার নামে এক গৃহবধূ।

শুক্রবার দুপুরে শ্রীনগর উপজেলার সেলামতি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগীর পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ বিয়ের পর থেকেই নানা অজুহাতে জেয়াসমিনের ওপর নির্যাতন চালিয়ে আসছে সিরাজুল ইসলাম।

আশংকাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে। তার শরীরের ৬০ শতাংশ পুড়ে গেছে বলে দাবি পরিবারের।

পুলিশ কনস্টেবলের ছুরিকাঘাতে শাশুড়ির মৃত্যৃ

চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় এক পুলিশ কনস্টেবলের ছুরিকাঘাতে শাশুড়ি শেফালী অধিকারীর মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন স্ত্রী ফাল্গুনী অধিকারী ও শ্যালক আনন্দ অধিকারী।

শনিবার ভোরে আলমডাঙ্গা উপজেলা শহরের মাদ্রাসা পাড়ায় এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন সিআইডির কনস্টেবল অসীম ভট্টাচার্য। গুরুতর আহত ফাল্গুনী ও আনন্দকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, চুয়াডাঙ্গা সিআইডিতে কর্মরত কনস্টেবল অসীম অধিকারী দীর্ঘদিন ধরে আলমডাঙ্গা উপজেলা শহরের মাদ্রাসা পাড়াতে ভাড়া বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন। তার বাড়ির সামনেই শ্বশুর সদানন্দর বাড়ি।

আহত আনন্দ অধিকারীর বরাত দিয়ে আলমডাঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহবুবুর রহমান জানান, অসীম ও ফাল্গুনী দম্পতির মধ্যে মাঝে মধ্যেই ঝগড়া হতো। শনিবার স্বামী-স্ত্রী’র ঝগড়ার এক পর্যায়ে ফাল্গুনী অধিকারী বাবার বাড়িতে চলে আসে। তার কিছুক্ষন পরই শ্বশুর বাড়িতে আসেন অসীম। ফাল্গুনী দরজা খুলতেই তাকে উপর্যপুরী ছুরিকাঘাত করে অসীম। এ সময় ফাল্গুনীল মা শেফালী অধিকারী ও ভাই আনন্দ অধিকারী অসীমকে থামানো চেষ্টা করলে অসীমের এলোপাতাড়ি হামলায় ঘটনাস্থলেই মারা যান শ্বাশুড়ী শেফালী অধিকারী। গুরুতর আহত হন স্ত্রী ফাল্গুনী ও শ্যালক আনন্দ।

নিহতের স্বামী সদানন্দ অধিকারী জানান, নয় বছর আগে খুলনার দৌলতপুর উপজেলার মহেশ্বরপাশা গ্রামের মৃত দুলাল ভট্টাচার্যর ছেলে অসীমের সঙ্গে বিয়ে হয় মেয়ে ফাল্গুনীর। বিয়ের পর থেকেই সন্দেহের বশবর্তী হয়ে মেয়ে ফাল্গুনীকে শারীরিক নির্যাতন করতো অসীম।

চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: কলিমুল্লাহ জানান, খবর পেয়ে ভোরেই নিহতের মরদেহ থানায় আনা হয়েছে। গুরুতর আহত ফাল্গুনী ও আনন্দকে কুষ্টিয়া মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছে কনস্টেবল অসীম ভট্টাচার্য।

এদিকে, চুয়াডাঙ্গার পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম (বার) ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনাটি একটু জটিল মনে হচ্ছে। তবে এটি পরিষ্কার যে ওই দম্পতির মধ্যে দাম্পত্য কলহ ছিল। অসীমকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

কাউন্সিল নিয়ে দুইমত বিএনপিতে

ঢাকা অফিস : কাউন্সিল নিয়েও দুই মত বিএনপিতে। একপক্ষের দাবি, সাংগঠনিক দুর্বলতা কাটিয়ে দলকে আন্দোলন উপযোগী করতে অবিলম্বে বিএনপির কাউন্সিল করা দরকার। অন্যপক্ষ বলছে, খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে দলের পদ ভাগাভাগি করতে ইচ্ছুক নন তারা।

বিএনপির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তিন বছর পরপর সম্মেলনের মাধ্যমে দলের নেতৃত্ব পরিবর্তনের বিধান রয়েছে। সে হিসেবে মার্চেই পেরিয়ে গেছে বর্তমান কমিটির মেয়াদ। এরই মধ্যে দলপুনর্গঠনে মাঠে নেমেছে বিএনপি। জেলা কমিটি ভেঙ্গে আহবায়ক কমিটি করার কাজও শুরু হয়েছে।

বিএনপি’র ভাইস-চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান কাউন্সিল প্রসঙ্গে জানান, ‘দিন ক্ষন, তারিখ এখনও ঠিক হয়নি। তৃণমূলের পুনর্গঠন শেষে অর্থাৎ জেলা পর্যায়ে পুনর্গঠন শেষে আমাদের জাতীয় কাউন্সিল হবে।’

অপর ভাইস-চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘অবিলম্বে প্রয়োজন দলের একটি কাউন্সিল করা। বেগম জিয়ার কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে কাউন্সিল করা।’

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ দাবি আদায়ে কার্যকর আন্দোলন গড়ে তুলতে অবিলম্বে কাউন্সিলের মাধ্যমে নেতৃত্ব বদলানোর কোনো বিকল্প নেই বলে মনে করেন নেতারা।

আন্দোলন প্রসঙ্গে ভাইস-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার মোহাম্মদ শাহজাহান ওমর(বীর উত্তম) মত প্রকাশ করেন, ‘অবস্থান ধর্মঘট বা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন; এ গুলি সুখী পরিবারের রাজনৈতিক কর্মসূচী। একটা বিরোধী দলের কর্মসূচী এ গুলো নয়।’

দলটির আরেক ভাইস-চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন কাউন্সির প্রসঙ্গে বলেন, ‘নীতি নির্ধারনী ফোরাম আলোচনা করে ঠিক করবেন যে, কবে নাগাদ কেন্দ্রীয় কাউন্সিল করা যাবে। তবে এটির জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ যেমন, ইউনিট গুলিকে পুনর্গঠন করার কাজ শুরু হয়েছে।’

কাউন্সিলের প্রয়োজনীতা স্বীকার করলেও দলীয় প্রধানকে ছাড়া সেদিকে মনযোগী নয় বিএনপি। দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় জানান, ‘আমার নেত্রী জেলে বসে আছে, আমি কাউন্সিল করবো। পদ ভাগাভাগি করবো। এটা আমাকে মানষিক ভাবে কতটা শক্তি যোগায়? এটা ভাবতে হবে।’

স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘প্রতিটা অঙ্গসংগঠন; বিএনপিসহ সব জায়গায় এ ধারাই চলবে যে, গণতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচিত হবে প্রতিটি স্তরে। নেতৃত্ব কেন্দ্রীয়  স্তরসহ।

সবশেষ ২০১৬ সালের ১৯শে মার্চ অনুষ্ঠিত হয় বিএনপির ষষ্ঠ কাউন্সিল। এর পাঁচ মাস পর কয়েক দফায় ৫৯২ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়।

খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা নিয়ে সরকার সচেতন

ঢাকা অফিস : দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা নিয়ে সরকার সজাগ রয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে দলীয় প্রধানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

নেতৃত্বের ব্যর্থতা আড়াল করতে খালেদা জিয়ার নিরাপত্তাকে একটি ইস্যু করার চেষ্টা করছে বিএনপি উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নিরাপত্তার ব্যাপারে সরকার যথেষ্ট সচেতন। এবং তাকে ( খালেদা জিয়াকে) প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা দিয়ে ওখানে রাখা হয়েছে। বিএনপি এখন এসব বিষোদগার করছে নেতা- কর্মীদের সামনে। তাদের নেতৃত্বের কোন সামর্থ এতদিন প্রমাণ করতে পারেন নি। একটা আন্দোলন করতে পারেন নি। এখন এই সব কথা বলা ছাড়া তাদের সামনে আর কোন ইস্যু নেই।’

প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরছেন আজ

ঢাকা অফিস : তিন দেশ সফর শেষে আজ ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকালে বিমান বাংলাদেশের একটি ফ্লাইটে কাতারের দোহা থেকে ঢাকায় অবতরণ করবেন তিনি। এর আগে কাতার এয়ারলাইন্সের একটি বিমানে ফিনল্যান্ড থেকে দোহায় আসেন প্রধানমন্ত্রী।

ফিনল্যান্ড, সৌদি আরব ও জাপান সফরে বেশ কয়েকটি চুক্তি হয়েছে বাংলাদেশের  সঙ্গে।  এছাড়াও সৌদি আরবে ওমরা হজ পালন এবং হযরত মুহাম্মদ সাল্লেলাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের রওজা মোবারক জিয়ারত করেন তিনি। সেখানে ১৪ তম ওআইসি সম্মেলনেও যোগ দেন।  এরপর চৌঠা জুন ফিনল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট সাউলি নিনিস্তোর সঙ্গে বৈঠক করেন শেখ হাসিনা।

এর আগে জাপানে ‘ফিউচার ফর এশিয়া’ বিষয়ক নিক্কেই সম্মেলনেও যোগ দেন তিনি। হলি আর্টিজান হামলায় হতাহতদের পরিবার এবং জাইকার প্রেসিডেন্ট শিনিচি কিতাওকার সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত ২৮শে এপ্রিল ত্রিদেশীয় সফরের জন্য ঢাকা ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী।