ফুলতলা উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক জিপ্পী সরদারের ইন্তেকাল ৩দিনের শোক কর্মসূচি

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি// খুলনার ফুলতলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বণিক কল্যাণ সোসাইটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সরদার শাহাবুদ্দিন জিপ্পী (৬৮) শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টায় খুলনার আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাহি রাজেউন ) মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ২পুত্র, ১কন্যাসহ বহু আত্মীয় স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে যান। এদিকে উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে ৩দিন ব্যাপী শোক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। গতকাল (শনিবার) বাদ আছর দামোদর পূর্বপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাযা শেষে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়। মাওঃ আল আমিনের ইমামতিতে নামাজের জানাযায় উপস্থিত ছিলেন সাবেক মন্ত্রী ও খুলনা-৫ আসনের এমপি নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব শেখ হারুনুর রশিদ, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড, সুজিত অধিকারী, সহসভাপতি বিএমএ সালাম, এ্যাড. ফরিদ আহমেদ, রফিকুর রহমান রিপন, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল, স্বেচ্ছাসেবক লীগের খুলনা জেলা সভাপতি শেখ মোহাম্মদ আবু হানিফ, খালেদিন রশিদী সুকর্ণ, আবু সালেহ, এম এ রিয়াজ কচি, জুবায়ের আহমেদ জবা, সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান রাসেল, অসীত বরণ বিশ্বাস, শিক্ষাবিদ আলহাজ¦ আনোয়ারুজ্জামান মোল্যা, প্রফেসর অধ্যক্ষ মোঃ শফিউল্লাহ সরদার, এ্যাড. জালাল উদ্দিন রুমি, ফুলতলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ শেখ আকরাম হোসেন, অভয়নগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহ্ ফরিদ জাহাঙ্গীর, ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সাধারণ সম্পাদক কম. আনছার আলী মোল্যা, প্রফেসর ড. মাহাবুব উল ইসলাম,  কাজী শামীম, জেলা জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারী মিয়া গোলাম কুদ্দুস, গাউসুল আজম হাদি, জেলা বিএনপি নেতা এস এ রহমান বাবুল, শেখ ইকবাল হোসেন, জেলা জাতীয় পার্টির সহসভাপতি সাঈদ আলম মোড়ল, বীর মুক্তিযোদ্ধা কামন্ডার কাজী জাফর উদ্দিন, মোঃ আসলাম খান, কাজী আশরাফ হোসেন আশু, এ্যাড. তারিক হাসান মিন্টু, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কেএম জিয়া হাসান তুহীন, দিঘলিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শামছুন্নাহার চম্পা, মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী কনা, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ মনিরুল ইসলাম, শরীফ মোহাম্মদ ভুইয়া শিপলু, শেখ আবুল বাশার, মনিরুল ইসলাম সরদার, শিল্পপতি ফেরদৌস আহমেদ ভুইয়া, ফিরোজ আহমেদ ভুইয়া, হাসান ইমামুল হক ভুইয়া, রাজীব আহমেদ ভুইয়া, আওয়ামীলীগ নেতা মৃনাল হাজরা, আবু তাহের রিপন, কামরুজ্জামান নান্নু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পারভেজ হাওলাদার, সেক্রেটারী ইমরান হোসেন, শেখ রওশন আলী, মোশারফ হোসেন মোড়ল, সরদার জাকির হোসেন, রবিন বসু, শেখ মিজানুর রহমান, মনির হাসান টিটো, অহিদুজ্জামান নান্না, হাসনাত রেজভী মার্শাল, অধ্যক্ষ সমীর কুমার ব্রক্ষ্ম, অধ্যক্ষ মোঃ মিজানুর রহমান, অধ্যক্ষ গাজী মারুফুল কবির, মরহুমের বড় পুত্র আশরাফুল আলম কচি, প্রেসক্লাব ফুলতলা সভাপতি তাপস কুমার বিশ্বাস, সাংবাদিক শেখ মনিরুজ্জামান, শামসুল আলম খোকন, সহকারী অধ্যাপক মোঃ নেছার উদ্দিন, ইসমাইল হোসেন বাবলু, এস কে আলী ইয়াছিন, শহিদুল্লাহ প্রিন্স, প্রদ্যুৎ কুমার বিশ্বাস, আশরাফুল আলম মোড়ল, নূর হোসেন, মঈনুল ইসলাম নয়ন, এস কে সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ। এদিকে উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে ৩দিন ব্যাপী শোক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে গতকাল (শনিবার) কালো পতাকা উত্তোলন এবং কালো ব্যাজ ধারণ, রোববার দলীয় কার্যালয়ে কোরআন খতম, সোমবার সন্ধ্যায় দলীয় কার্যালয়ে দোয় মাহফিল। এর পূর্বে সর্বস্তরের জনসাধারণের জন্য শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বেলা ১১টায় আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে রাখা হয। মরহুমের কফিনে জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ও উপজেলা আওয়ামীলীগ, ওয়ার্কার্স পার্টি, শহীদ আসাদ রফি গ্রন্থাগারসহ সর্বস্তরের মানুষ তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। জাানযার পূর্বে জেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে মরহুমের কফিনে দলীয় পতাকা ও পুষ্পস্তবক অর্পন করে শেষ শ্রদ্ধা জানান।

আপনার মতামত জানানঃ